অরাজ
প্রচ্ছদ » বিদ্রোহের প্রাণস্পৃহা।। পিতর ক্রপোৎকিন

বিদ্রোহের প্রাণস্পৃহা।। পিতর ক্রপোৎকিন

বিপ্লব দাবি করে সর্বব্যাপি বিদ্রোহ। কিন্তু বিদ্রোহের স্পৃহা আসে কোথা থেকে? স্বাধীনতার বোধ থেকে। কর্তৃত্বপরায়ন শাসন-শোষণের যাঁতাকলে মানুষ যখন পিষ্ট, কেবলমাত্র এবং কেবলমাত্র সামাজিক সংহতিই তাকে বিদ্রোহের পথ দেখায়। রাষ্ট্রর কল-কব্জাগুলো অসাড় হয়ে পড়ে, হারাতে থাকে তার ছন্দ। হাজির হয় অনিবার্য বৈপ্লবিক পরিস্থিতি। কেমন করে এই বৈপ্লবিক পরিস্থিতিতে সমাজ লড়াকু হয়ে ওঠে তারই এক চিত্রায়ন বিপ্লবের প্রাণস্পৃহা।

রুশ নৈরাজ্যবাদী চিন্তক পিতর ক্রপোৎকিনের The Spirit of Revolt প্রথম ছাপা হয় Le Révolté নামে, ১৮৮০ সালে। ১৮৯২ সালে Commonweal-এ ছাপা হয় এর ইংরেজি অনুবাদ। বর্তমান অনুবাদটি ১৯৭৫ সালে প্রকাশিত The Essential Kropotkin অনুসারে করা হয়েছে।

নৈরাজ্যবাদী চিন্তক ক্রপোৎকিন সামাজিক বিকাশের ধারা-প্রবণতাকে আধুনিক প্রকৃতি বিজ্ঞানের নানামুখি অর্জনের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত করতে সক্ষম হন। সামাজিক ডারুইনবাদের Survival for the fittest মতবাদের বিপরীতে তিনি তাঁর Mutual Aid: Factor of Evaluation বইয়ে দেখান যে, প্রকৃতিতে পারস্পারিক সহযোগিতার মধ্য দিয়েই প্রজাতিগুলো বিকশিত হয়। শরীরবৃত্তীয় ভাবে দুর্বল প্রাণসত্তার প্রবৃত্তি হল তা সংহতিপরায়ন। আদতে সামাজিক সংহতিই ক্রমাগত জীবনের উচ্চতর গঠন নিশ্চিত করে।

ক্রপোৎকিন বিদ্রোহকে মানবীয় প্রবৃত্তি মনে করেন। প্রচ্ছদে ব্যবহৃত চিত্রকর্মটি আলবেনীয় ফ্যাসিবাদ বিরোধী সংগ্রামের প্রতীক। ১৯৬৯ সালে স্লাভ চিত্রকর সালি শিজাকু তিরিশের দশকের প্রখ্যাত আলবেনীয় বিপ্লবী ভোজো কুশির এই প্রতিকৃতি অঙ্কন করেন। দ্রোহ ও সাহসিকতা ভঙ্গি চিত্রকর্মটিকে করে তোলে বিদ্রোহের স্মারক।

পিডিএফ ডাউনলোড করুন এই লিংক থেকে।

অরাজ

অরাজ

অরাজ

অরাজ